আপনি নিজে গর্ভবতী না হয়েও মা হতে পারেন - আর্টিফিসিয়াল আই কো - Kolkata

Wednesday, 7 March 2018

Item details

City: Kolkata, West Bengal
Offer type: Sell
Price: Rs 30,000

Contacts

Contact name Sumitra Agarwal
Phone 9433096024

Item description

মা হতে পারা যেকোনো নারীর জন্য অতি সভাগ্গ্যের কথা ৷ কিন্তু আমাদের দেশে এমন অনেক নারী আছেন যারা মা হতে অক্ষম ৷ মা না হতে পারা যেমন নারীর অক্ষমতার কারণে হয়ে থাকে ঠিক তেমনি পুরুষের অক্ষমতার কারণে ও হয়ে থাকে ৷ যুগের সাথে তাল মিলিয়ে অনেক কিছু বদলেছে বদলায়নি আমাদের এই নিষ্ঠুর সমাজ, আর ঠিক এই কারনেই নারীর মা হবার অক্ষমতার জন্য এই সমাজ শুধু একজন নারীকেই দোষারোপ করেন, কেও একবারের জন্যও ভাবে না এটা শুধু নারীর অক্ষমতার কারণে না পুরুষের অক্ষমতার কারনেও হতে পারে, এমনকি তারা সেই অক্ষম নারীকে দোষারোপ করতে গিয়েও একবার ভাবে না সেই নারীর ঠিক কত পরিমান কষ্ঠ হচ্ছে ৷ সমাজ শুধু নারীদের দোষারোপ করে এবং তাদের মানসিক ভাবে আরো দুর্বল করে তোলে ৷ ধীরে ধীরে তারা এত টাই ভেঙ্গে পরে যে তারা আর কোনো সিধান্ত নিতে পারেন না, অবশেষে তারা তাদের ভাগ্যের কাছে হার মানতে বাধ্য হন এবং বর্তমান অবস্থাকে তাদের ভবিতব্য বলে মেনে নেন ৷ যার ফলে নারীরা জগতের সবচেয়ে মিষ্টি সম্পর্ক মা ও সন্তানের সম্পর্ক থেকে বঞ্চিত থাকেন ৷ আবার কোনো কোনো দম্পতি যখন অনেক ডাক্তার দেখিয়েও কোনো ফল পাননা তখন তারা বাধ্যতা মূলক ভাবে অনাথ আশ্রম থেকে সন্তান দত্তক নেন ৷ এভাবেই একজন মা তার সন্তান এবং সন্তান তার নতুন মা কে খুঁজে পায় ঠিকই কিন্তু একটা ভ্রুণ যে তিলে তিলে মায়ের শরীরে বেরে উঠছে এবং তাকে বেরে উঠতে দেখে একজন মায়ের যে কতটা সুখ ও আনন্দ হয় তা থেকে কিন্তু মায়েরা বঞ্চিত থেকেই যাচ্ছেন ৷ এখানেও নারীদের সমস্যা শেষ না, এমনও অনেক পরিবার আছে যারা এই দত্তক ব্যবস্থাকে ঠিক মেনে নিতে পারেন না, তারা ঠিক মান্ধাতা আমলের মানুষের মত বলে থাকেন ‘বংশ রক্ষার জন্য আমাদের বংশধর চাই, অন্যের সন্তানকে কেন আমরা নিজেদের বলে ভাবব’ ৷ তাহলে সেই অক্ষম নারীরা কি করবেন, তারা কি কোনো দিন সন্তান জন্ম দিতে পারবেন না? থেকে যাচ্ছে আরো অনেক প্রশ্ন ৷
চিন্তা করার কোনো বিষয় নেই, এই ভয়াবহ অবস্থার একটা ‘মুশকিল আসান’ সমাধান পাওয়া গেছে ৷ হ্যা ঠিকই শুনছেন এখন মা হতে অক্ষম নারীরাও নিজের সন্তানের মা হতে সক্ষম ৷ এই ‘মুশকিল আসান’ টি হয়ে থাকে ‘সেরগেসি’ পদ্ধতির মাধমে ৷ এখন আপনার মনে প্রশ্ন উঠছে এই ‘সেরগেসি’ পদ্ধতিটি আসলে কি? ঘাবড়াবার কিছু নেই ‘সেরগেসি' হলো এমন এক পক্রিয়া যার মাধ্যমে আপনি মা হতে পারবেন, আপনার সন্তান ধীরে ধীরে অন্য মহিলার গর্ভে বেড়ে উঠবে ৷ কিন্তু ওই যে নিষ্ঠুর সমাজ সে তো কিছুতেই মানতে চাইবে না সেই সন্তানকে, সে বার বার তাকে অন্যের সন্তান বলে গণ্য করবে, কিন্তু এতেও ঘাবড়াবার প্রয়োজন, ভয় পাবার ও কিছুই নেই ৷ বর্তমান যুগে বিজ্ঞান অনেক সাফল্য অর্জন করেছে তাহলে কি আমরা এটা ভাবতে পারি যিনি গর্ভবতী নন তাকেও গর্ভবতী দেখানো যাবে? আমি যদি হ্যা বলি তাহলে আপনি ভাববেন না যে এটা কোনো কাল্পনিক গল্প কথা ৷ আমাদের ভারতবর্ষে, কলকাতায় এমনকি আশ্চর্যজনক ভাবে হাওড়া লিলুয়ায় ডা: সুমিত্রা অগ্রাবলা এটা নিয়া কাজ করছেন এবং এই সমস্যার সমাধান করেছেন ৷ এটা সম্ভব ‘আর্টিফিসিয়াল সিলিকোন বেলি'- এর সাহায্যে ৷ এবার আপনার মনে প্রশ্ন আসছে ‘আর্টিফিসিয়াল সিলিকোন বেলি' কি? তাহলে ‘আর্টিফিসিয়াল সিলিকোন বেলি'-এর সম্পর্কে বলে রাখি এটি এমন একটি ক্রিত্তিম পেট যা আপনি খুব সহজেই পরে থাকতে পারবেন, এবং এটি দেখতে একদম আসল পেটের মত তাই কেও বুঝতেই পারবেন না যে আপনি ক্রিত্তিম পেট পড়েছেন ৷ আপনাকে এটি আপনার কোমরে বেল্টের সাহায্যে পরে থাকতে হবে ৷ এই পেট ব্যবহার করার কিছু সুবিধা আছে যেমন ধরুন কেও বুঝতেই পারবে না আপনি নকল পেট পড়েছেন, আর আপনার সন্তানযে আপনার মধ্যেই তিলে তিলে বেরে উঠছে তাও আপনি অনুভব করতে পারবেন ৷ এই ‘আর্টিফিসিয়াল সিলিকোন বেলি'পরিহিত করে থাকলে সবাই জানবে আপনার সন্তান আপনার মধ্যেই বেরে উঠছে কিন্তু আসল ঘটনা হলো সে বেরে উঠবে অন্যের গর্ভে, ৯ মাস পর আপনি এবং আপনার সন্তানের গর্ভধাত্রী মা একই সাথে এবং একই হাসপাতালে ভর্তি হবেন তারপরে কিছুক্ষণ পর আপনার কোল আলো করে আপনার সন্তান আপনার কোলে আসবে ৷ আজকের দিনে কিনা সম্ভব ঠিক তেমন ভাবে একজন গর্ভবতী মহিলার গর্ভাবস্থায় যে শারীরিক পরিবর্তন ঘটে এবং তার পেটের মধ্যে শিশুর ক্রমবিকাশের জন্য গর্ভবতী মহিলার পেটের আকৃতির পরিবর্তন ঘটে এবং ক্রমশ পেট টা বাড়তে থাকে ঠিক একই রকম ভাবে ‘আর্টিফিসিয়াল সিলিকোন বেলি' - এর সাইজও ক্রমশ বাড়ানো সম্ভব ৷ এই ‘আর্টিফিসিয়াল সিলিকোন বেলি' - এর মাধ্যমে আপনি মাতৃত্তের সাধ পাবেন এবং আবার সুখে স্বামী, সন্তান, আত্তীয়-স্বজনদের নিয়ে সামাজিক জীবন যাপন করতে পারবেন আর অন্য দিকে আসল বিষয়টা কেও ঘুনাক্ষরে ও টের পাবে না ৷
আগামী ৮ই, মার্চ, ২০১৮ আন্তর্জাতিক মহিলা দিবস, সেই দিন আমরা মহিলাদের নিয়ে অনেক অনুষ্ঠান করব বড় বড় জাগায় বলব আজকের দিনে মহিলারা সব দিক দিয়ে উন্নত, মহিলারা কোনো অংশে কম না, আজ কাল পুরুষদের থেকে মহিলারাই এগিয়ে আরো কত কিছুই না বলব ৷ কিন্তু আপনি বা আপনারা কি একবারও ভাবেছেন মহিলারা কি সত্যি উন্নত, সত্যি কি তারা পুরুষদের থেকে এগিয়ে? নি:সন্দেহে সবাই বলব হ্যা, কিন্তু একবারও কি ভেবে দেখেছেন যদি সত্যি যদি মহিলারা এতই উন্নত তাহলে আজকের দিনে দরিয়ে কেন একজন মাকে তার সন্তান পেতে এত লুকাতে হবে? কেন তাকে এত গোপনীয়তা মানতে হবে? হয়ত আপনারা এত কিছু ভাবেন নি, তাহলে একবার ভাবে দেখুন তো কি মহিলারা আজকের দিনে সত্যি উন্নত ৷ www. Artificialeyeco. Com ৷